অন্যান্য দলআওয়ামী লীগআরো সংবাদজাতীয় ঐক্যফ্রন্টবিএনপিলীড

অবস্থার পরিবর্তন ঘটাতে নতুন দল লাগবে: মান্না

শনিবার, ২৯ আগস্ট, ২০২০।। ১৯:৪০

নিজস্ব প্রতিবেদক

অবস্থার পরিবর্তন আনতে পুরনো দলগুলো দিয়ে হবে না, নতুন দল লাগবে বলে মন্তব্য করেছেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না।

শনিবার (২৯ আগস্ট, ২০২০) বিকেলে এক যোগদান অনুষ্ঠানে তিনি এই মন্তব্য করেন।

মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, প্রায় পত্রিকায় ছবি দেখবেন, কেউ স্বাস্থ্য বিধি মানে না। শুধু স্বাস্থ্য বিধি মানেন প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রীরা এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

ওরা ঘর থেকে বেরুয় না। রিকসাওয়ালা স্বাস্থ্য বিধি মানবে কিভাবে? দিনমজুর স্বাস্থ্য বিধি মানবে কিভাবে?

নিম্ন বেতনভুক কর্মচারি স্বাস্থ্য বিধি মানবে কিভাবে? ইনফরমাল সেক্টরে কাজ করে বেশির ভাগ লোক, বেতন পায় না, তারা স্বাস্থ্য বিধি মানবে কিভাবে…?

তিনি বলেন, আজকে পুরো দেশেরই কোনো বিধান নেই। খালি স্বাস্থ্যের মধ্যে বিধান চালু করলে তো হবে না। অবস্থার পরিবর্তন ঘটাতে হবে।

যদি গঠন করতে হয় পুরো দেশ গঠন করতে হবে, পুরো দেশের অবস্থার তথা খোলনলচে বদলে নতুন করে সাজাতে হবে।

তার জন্যে পুরনো দলগুলো দিয়ে হবে না, নতুন দল লাগবে। আর ওই লক্ষ্যেই নাগরিক ঐক্যের জন্ম।

মান্না বলেন, ৫৯ বছরে বাংলাদেশ এরকম শাসক কখনো পাইনি। যাদের ওপরে এই দেশ নির্ভর করতে পারে। নাগরিক ঐক্য গঠন করেছি কেনো?

যখন আমাদের মনে হয়েছে, আমাদের প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে পোস্টার ছেপেছিলাম, দুই নেত্রীর হাতে নিরাপদ নয়, তৃতীয় রাজনৈতিক শক্তি গড়ে তোলার এখনই সময়।

তিনি বলেন, এখন মানুষ বিশ্বাস করতে পারছে না, মানুষ আস্থায় নিতে পারছে না। মানুষ বলছে এই ওসি প্রদীপকে কোথায় থেকে আসলো।

কে তাকে গোল্ড মেডেল পরিয়ে দিলো? কে তাকে এতো অভিযোগের পরও তার জায়গা রেখে দিলো শুধু একজন? নাকী অনেকে মিলে?

এই প্রশাসনকে নষ্ট করেছে কারা? ৫৯ বছর যদি আমরা দেখি, তাও উপায় নেই।

এক সময়ে আওয়ামী লীগে থাকার কথা উল্লেখ করে মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, আমি আমার নিজের কথা বলি। আওয়ামী লীগ করতাম।

আওয়ামী লীগ থেক হঠাত করে ১৪ তলা থেকে মানুষকে ফেলে দেয় না যেরকম, আমাকে এরকম ফেলে দেয়া হলো।

টেলিভিশনে মাঝে-মধ্যে দেখায় না- উপর থেকে পড়ে গেছে মেঝের মধ্যে পারদের মতো সেটা একটা লিকুয়িড হয়ে গেছে।

সেই লিকুয়িড চলতে চলতে আস্তে আস্তে একটা মানুষ দাঁড়িয়ে গেলো। আমি এরকম পড়ে গিয়ে আমার হাত-পা সব ভেঙে গেলো।

কিন্তু আমার মনটা ঠিক থাকলো। আমি মনে করলাম না কিছু একটা করব, যেহেতু কিছু একটা করছি। এই যে হাটতে শুরু করলাম।

মানুষ বলে পায়ে লক্ষী। চলেন, হাটেন, কথা বলেন, আপনি আরো সম্পদ, শক্তি সংগ্রহ করতে পারবেন।

এরকম করে আস্তে আস্তে করে আজকে এই মঞ্চে যারা দেখছেন, এর বাইরেও অজস্র মানুষ রয়েছে।

আসলে নতুন কিছু দরকার তার বড় প্রমাণ আজ সাকিব আলী, নাজমুস সাদাত, রাজ্জাক শরীফসহ এতোজন মানুষের যোগ দিয়েছেন।

সরকারের সমালোচনা করে তিনি বলেন, আমাদের রাজনীতিতে দুর্বৃত্তায়নটা মূল কথা, আমাদের রাজনীতিতে কোনো সুস্থতা নেই, আমাদের রাজনীতিতে কোনো ইতিবাচকভাবে গঠন করবার অবস্থা নেই।

জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে সাবেক কূটনীতিক সাহেব আলীসহ কয়েকজন নাগরিক ঐক্যে  যোগদান উপলক্ষে এই অনুষ্ঠান হয়।

অন্য যারা যোগ দিয়েছেন তারা হলেন, আবদুর রাজ্জাক তালুকদার, নাজমুস সাদাত, সামিউল আলম রাসু, সেলিম রেজা. শফিকুল ইসলাম জয়, সাইফুল ইসলাম, শাহিন মন্ডল, ফেরদৌসী আক্তার, রাজ্জাক শরীফ।

নাগরিক ঐক্যে যোগ দিয়ে সাহেব আলী বলেন, আমি প্রায় ৫ বছর আগে সরকারি চাকুরি থেকে পদত্যাগ করেছিলাম রাজনৈতিক কারণে।

পাঁচ বছর দেখলাম। আমি মান্না ভাইকে একমাত্র মনে করি, জাতীয় নেতাদের মধ্যে যিনি যুক্তিবাদী মানুষ, উনি সবাইকে কথা বলতে দেন, সবার কথা শুনেন, সেটা বিবেচনা করেন।

অন্যের মতামতের প্রতি উনার একটা শ্রদ্ধাবোধ আছে। আমি সেই হিসেবে বলি নাগরিক ঐক্য একমাত্র দল যেখানে একটা সিস্টেম আছে।

সেজন্য আমি মান্নার নেতৃত্বে এগুতে পারবো বলে এই দলে যোগ দিয়েছি।

আমাদের ফেসবুক পেজ লাইক করুন: https://www.facebook.com/Polnewsbd/

Tags

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three + 4 =

Back to top button
Translate »
Close
Close