জাসাসবিএনপি

দেশীয় সংস্কৃতি বিপন্ন করার চেষ্টা হচ্ছে: রিজভী

জিয়ার মাজারে জাসাসের পুষ্পার্ঘ নিবেদন

২৭ ডিসেম্বর ২০২০।। ১১.৩০

নিজস্ব প্রতিবেদক

জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থার (জাসাস) ৪২ তম প্রতিষ্ঠিাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে শেরেবাংলা নগরে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজারে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

রোববার (২৭ ডিসেম্বর) সকালে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীকে নিয়ে জাসাস নেতৃবৃন্দ জিয়ার মাজারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

পরে ফাতিহা পাঠ শেষে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান, সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান সহ দেশবাসীর জন্য বিশেষ দোয়া করা হয়।

সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে সাংবাদিকদের রুহুল কবির রিজভী বলেন, আজকে জাসাসের ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে শহীদ জিয়ার মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হলো।

এই সংগঠন শহীদ জিয়া নিজ হাতে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তিনি ভিনদেশী সাংস্কৃতিক আগ্রাসন প্রতিরোধে বিশিষ্ট ছড়াকার, আবৃত্তিকার, গুণী শিল্পী ও সাংষ্কৃতিক ব্যক্তিদের সমন্বয়ে জাসাস প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।

রিজভী বলেন, আজো আমাদের সংস্কৃতি বিপন্ন করে তোলার চেষ্টা হচ্ছে। দেশকে একটি আধিপত্যবাদী শক্তির অংশ বলে পরিচয় দেয়ার অপচেষ্টা হচ্ছে।

আমরা মনে করি জাসাস এখানেই ভিন্ন। যারা শুধু বিএনপির নয় বাংলাদেশের নিজস্ব সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যকে লালন করে আসছে।

দেশের জাতীয়তাবাদী শক্তির সাংস্কৃতিক অঙ্গণের প্রধান শক্তি হিসেবে প্রতিনিধিত্ব করে। জাসাসের গুরুত্ব অনেক বেশি।

আমাদের স্বতন্ত্র্য সংস্কৃতিকে বিপন্ন করা হচ্ছে। কিন্তু জাসাস দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষায় দেশের চিন্তা-চেতনা নিয়ে দেশীয় সংস্কৃতি রক্ষায় কাজ করছে।

আজকে আমাদেরকে সাংস্কৃতিক আগ্রাসন প্রতিরোধে ও দেশীয় সংস্কৃতি সুরক্ষায় সাংস্কৃতিক কর্মীদের অবদান অনেক বেশি। সেটাই করে চলছে জাসাস।

তবে দেশের মানুষ আজকে নাগরিক স্বাধীনতা হারিয়েছে, কথা বলার স্বাধীনতা ও ভোট দেয়ার স্বাধীনতা ও কণ্ঠের স্বাধীনতা হারিয়েছে।

এসব স্বাধীনতা যখন মানুষের থাকে না তখন বুঝতে হবে যে, কোনো একটি আধিপত্যবাদী শক্তির দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে দেশ।

আজকে পৌসভায় নির্বাচনে একজন নারীও আওয়ামী লীগের নির্যাতন থেকে রেহাই পাচ্ছে না। কিশোর, পুরুষ কেউ রক্ষা পাচ্ছে না।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে রিজভী বলেন, আমাদের প্রত্যাশা- মানুষ সুখে সমৃ্দ্ধিতে থাকুক।

নতুন বছরে জনগণের প্রত্যাশাই আমাদের প্রত্যাশা। কারণ জনগণ চায় তাদের ভোটাধিকার ও মৌলিক অধিকার।

জিয়ার মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদনকালে জাসাসের সভাপতি ড. মামুন আহমেদ, সেক্রেটারি চিত্রনায়ক হেলাল খান,

কেন্দ্রীয় নেতা জাকির হোসেন রোকন সহ বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা উপস্থিতি ছিলেন।

ফেসবুক পেজ লাইক করুন: https://www.facebook.com/Polnewsbd/

আমাদের টুইটার প্রোফাইল ফলো করুন: https://twitter.com/BdPolitical

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × two =

Back to top button
Translate »