ছাত্রলীগ

প্রশাসনের গাফিলতিতে শিক্ষার্থীরা ক্ষতিগ্রস্ত: ছাত্রলীগ

২১ জুন ২০২১।। ১৭.২৮

করোনায় দীর্ঘ বন্ধের কারণে শিক্ষার্থীদের অনেকে দুশ্চিন্তায় রয়েছেন। তাঁরা দীর্ঘদিন শিক্ষা কার্যক্রমে নেই। চাকরির পরীক্ষাগুলোও হচ্ছে না। এ কারণে শিক্ষার্থীদের মধ্যে হতাশা কাজ করছে।
ঢাবি প্রশাসনের সমালোচনা করে সনজিত বলেন, প্রশাসনের গাফিলতির কারণে সাধারণ শিক্ষার্থীদের অনেক ক্ষতি হয়েছে। প্রশাসনকে তাঁরা বলতে চান, কেবল আবাসিক নয়, অনাবাসিক শিক্ষার্থীদেরও দ্রুততম সময়ে করোনার টিকার আওতায় আনার ব্যবস্থা করতে হবে। শিক্ষার্থীদের দাবি অনুযায়ী হল খুলে দেওয়ার বিষয়টি দ্রুততম সময়ের মধ্যে সমাধান করতে হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাকেন্দ্রের স্বাস্থ্যসেবার মান উন্নত করতে হবে। ঢাবি কোনো মাদকসেবী বা দুর্নীতিবাজের আশ্রয়স্থল হতে পারে না। এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। মাস্টারপ্ল্যান বাস্তবায়ন করে বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসন সমস্যার সমাধান করতে হবে।

ছাত্রলীগের ঢাবি শাখার সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ। অথচ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন হলের আবাসিক ফি চালু রেখেছে।
প্রশাসনের প্রতি আমাদের আহ্বান, এই ফি প্রত্যাহার করে নিন। বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকার কারণে শিক্ষার্থীরা পরিবহনসুবিধাও নিচ্ছেন না।
কিন্তু তারপরও ১ হাজার ৮০ টাকা করে পরিবহন ফি নেওয়া হচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে বলতে চাই, আপনারা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে অভিভাবকসুলভ আচরণে ব্যর্থ হয়েছেন।
আপনাদের শিক্ষার্থীবান্ধব ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ। এসব ফি নেওয়া বন্ধ না করলে আমরা বিশ্বাস করব যে আপনাদের নৈতিকতা রং রুটে চলে গেছে।’

সমাবেশে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ চৌধুরী ও মাহবুব খান, মানবসম্পদ উন্নয়নবিষয়ক সম্পাদক নাহিদ হাসান, ত্রাণ ও দুর্যোগবিষয়ক সম্পাদক ইমরান জমাদ্দারসহ সংগঠনের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ও বিভিন্ন হল শাখার দুই শতাধিক নেতা-কর্মী অংশ নেন।

ফেসবুক পেজ লাইক করুন: https://www.facebook.com/Polnewsbd/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 + 12 =

Back to top button
Translate »