শুক্রবার, জুলাই ১, ২০২২

ইডেন কলেজে ছাত্র ফ্রন্টের উপর ছাত্রলীগের হামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক

ইডেন মহিলা কলেজ ছাত্র ফ্রন্টের উপর ছাত্রলীগের হামলার অভিযোগ উঠেছে। তবে হামলার বিষয়টি অস্বীকার করেন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি তামান্না জেসমিন ওরফে রিভা।

অভিযোগ উঠে, এই হামলায় ছাত্র ফ্রন্ট নেতাকর্মীদের মোবাইল ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করা হয় এবং ব্যানার ছিঁড়ে ফেলা হয়।

সোমবার ইডেন কলেজের সামনে ছাত্র ফ্রন্টের  টেন্টে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

এসময় ছাত্র ফ্রন্টের ইডেন কলেজ শাখার সভাপতি সায়মা আফরোজ, সাধারণ সম্পাদক শাহিনুর সুমিসহ বেশ কয়েকজনের সাথে ছাত্রলীগের একই শাখার সভাপতি, সহ-সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকের সাথে হাতাহাতি হয় বলে জানা যায়।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, অবিলম্বে ৮ টি রুটে বাস সার্ভিস চালু করা, হলের ক্যান্টিনের খাবারের মান উন্নয়নসহ কলেজের অভ্যন্তরীণ সমস্যাগুলো নিয়ে চার দফা দাবি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে আসছিলো ইডেন কলেজ শাখা ছাত্র ফ্রন্ট।

তারই অংশ হিসেবে আজ সকালে মিছিল ও সমাবেশ শেষে ইডেন কলেজের প্রাধ্যক্ষের নিকট চার দফা দাবি বাস্তবায়নের জন্য স্মারকলিপি প্রদান করেন তারা।

স্মারকলিপি প্রদান শেষে ছাত্র ফ্রন্টের বসার জায়গায় (কড়ইতলা) তারা গিয়ে বসার সাথে সাথেই ছাত্রলীগের ওই হল শাখার নেতাকর্মীরা অতর্কিত হামলা চালায়।

এ হামলার নেতৃত্বে থাকার অভিযোগ উঠে ওই কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি জেসমিন রিভা ও সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানা, সহ-সভাপতি সুস্মিতা, রোকসানা প্রমুখের নামে।

হামলায় ভুক্তভোগী কলেজ শাখা ছাত্র ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক শাহিনুর সুমি ইনকিলাবকে বলেন, আমরা গত একমাস ধরে অভ্যন্তরীণ সংকট নিয়ে চার দফা দাবিতে কর্মসূচি পালন করে আসছি।

শিক্ষার্থীদের স্বাক্ষর সংগ্রহ করছি। তারই ধারাবাহিকতায় আজ শিক্ষার্থীদের স্বাক্ষর সংগ্রহ করে অধ্যক্ষ বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করি।

স্মারকলিপি দিয়ে আমরা আমাদের নিয়মিত আড্ডার জায়গায় বসি এবং প্রায় দশমিনিট পর আমাদের উপর ছাত্রলীগ হামলা করে।

তারা আমাদের লাঞ্ছিত করে, ব্যানার ছিঁড়ে ফেলে, সভাপতির ফোন কেড়ে নেয়ার চেষ্টা করে।

এসময় আমাদের কয়েকজন ভিডিও করতে চাইলে তাদের ফোন নিয়ে ভিডিও ডিলিট করে। আমরা এই হামলার সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।

এদিকে হামলার বিষয়টি অস্বীকার করে কলেজ শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি রিভা বলেন, এমন কোনো হামলার ঘটনা ঘটেনি।

আমি যতটুকু জানি তারা জনে জনে শিক্ষার্থীদের নিকট গিয়ে টাকা তুলছিল।

তো এখানে কলেজ প্রশাসন রয়েছে, প্রিন্সিপাল রয়েছে ; কিন্তু তারা কাউকে না জানিয়ে এই কর্মসূচি পালন করছিল যা শিক্ষার্থীরা মেনে নিতে পারেনি। তবে ছাত্রলীগের হামলার বিষয়টি সত্য না।

জানা যায়, সারাদেশে বন্যার্তদের সাহায্যের জন্য এদিন একই ক্যাম্পাসে টাকা তুলছিল ছাত্র ফ্রন্টের অপর একটা শাখা। তবে হামলার ঘটনা ঘটে অন্য গ্রুপের সাথে।

ফেসবুক পেজ লাইক করুন: https://www.facebook.com/Polnewsbd/

আমাদের টুইটার প্রোফাইল ফলো করুন: https://twitter.com/BdPolitical

Related Articles

আমাদের সোসাল মিডিয়া

সর্বশেষ সংবাদ

Translate »