Category Archives: অন্যান্য দল

শেখ শওকত হোসেন নীলুর মৃত্যুবার্ষিকী বৃহস্পতিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক

ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) প্রয়াত চেয়ারম্যান শেখ শওকত হোসেন নীলুর চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকী বৃহস্পতিবার। ২০১৭ সালের ৬ মে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে একদিনের কর্মসূচি গ্রহণ করেছে এনপিপি। শেখ নিলুর রুহের মাগফিরাত কামনায় বৃহস্পতিবার (৬ মে) রাজধানীর পুরানা পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এনপিপির উদ্যোগে কোরআন খতম ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া এদিন (৫০টি জেলায়) দুস্থদের মাঝে শাড়ি ও লুঙ্গি বিতরণ করা হবে।

এদিকে মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বুধবার (৫ মে) এক বিবৃতিতে প্রয়াত শেখ নিলুর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেছেন এনপিপির চেয়ারম্যান শেখ ছালাউদ্দিন ছালু ও মহাসচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাই মন্ডল।

দশম সংসদ নির্বাচনের পর বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোট ছেড়ে নতুন রাজনৈতিক জোট ন্যাশনালিস্ট ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট-এনডিএফ গড়েছিলেন শেখ শওকত হোসেন নীলু। এই জোটের আহ্বায়ক ছিলেন তিনি।

শওকত হোসেন নীলুর জন্ম ১৯৫২ সালের ৩ এপ্রিল গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়ার গিমডাঙ্গা গ্রামে। গোপালগঞ্জেই ষাটের দশকে ছাত্র ইউনিয়নের মাধ্যমে রাজনীতিতে হাতেখড়ি তার।

বিএনপির প্রতিষ্ঠাকালীন কৃষিবিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন শেখ শওকত হোসেন নীলু। পরে এইচ এম এরশাদের আমলে তার দল জাতীয় পার্টিতে যোগ দেন তিনি। দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং কৃষক পার্টির সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন নীলু।

এক পর্যায়ে জাতীয় পার্টি ছেড়ে ২০০৮ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর এনপিপি গঠন করেন নীলু। পরে ২০১২ সালে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোটে (বর্তমানে ২০ দলীয় জোট) যোগ দেন তিনি।

বিএনপি জোটের বর্জনের মধ্য দিয়ে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত ভোটে জয়ী হয়ে টানা দ্বিতীয় মেয়াদে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করার পর ওই বছরের সেপ্টেম্বরে জোট ছাড়েন শেখ নীলু।

পরবর্তীতে একই বছরের সেপ্টেম্বরে বিএনপি জোটের কয়েকটিসহ মোট ১০টি দল নিয়ে এনডিএফ জোটের ঘোষণা দিয়েছিলেন তিনি।

ফেসবুক পেজ লাইক করুন: https://www.facebook.com/Polnewsbd/

আমাদের টুইটার প্রোফাইল ফলো করুন: https://twitter.com/BdPolitical

সরকার পরিবর্তনে আত্মত্যাগে প্রস্তুত থাকতে হবে : ডা. জাফরুল্লাহ

২ মে, ২০২১ ।। ২০.৪৩

নিজস্ব প্রতিবেদক

গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে সরকার পরিবর্তনের লক্ষ্যে আত্মত্যাগের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

রোববার (২ মে) সকালে আমার বাংলাদেশ (এবি) পার্টির প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে শুভেচ্ছা বক্তব্যে ভার্চুয়ালি এই মন্তব্য করেন তিনি। রাজধানীর বিজয়নগরের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

ভাসানী অনুসারী পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, দেশের মানুষ এই সরকারের পরিবর্তন চায়। এই পরিবর্তনের জন্য সবাইকে সাহস সঞ্চয় করা দরকার। জয় আমাদের হবেই। আমাদের কিছু লোকের আত্মত্যাগের মাধ্যমে যদি সরকার পরিবর্তন হয়, তার চেয়ে বড় সফলতা আর কী হতে পারে?

এবি পার্টির আহ্বায়ক ও সাবেক সচিব এএফএম সোলায়মান চৌধুরী বলেন, যখন সংবিধানের দোহাই দিয়ে সাংবিধানিক রাজনীতির সব পথ রুদ্ধ করা হয়েছে, নির্বাচনের নামে আগের রাতে ভোট ডাকাতি করে জনগণের সঙ্গে প্রতারণা ও তামাশার উৎসব চালু করা হয়েছে, রাজনীতি নিয়ে মানুষের মাঝে ভয়, শংকা ও চরম অনীহা বিরাজমান- তখন স্রোতের বিপরীতে দাঁড়িয়ে দেশ, জাতি ও নতুন প্রজন্মকে কল্যাণ রাষ্ট্র ও রাজনীতির নতুন অভিমুখ দেখানোর দুঃসাহসিক লক্ষ্যেই গত বছর এই দিনে এবি পার্টি তার আত্মপ্রকাশের ঘোষণা দেয়।

গণফোরামের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রেজা কিবরিয়া বলেন, এই সরকারের অধীনে গণতান্ত্রিক সংস্কৃতির অবক্ষয় হয়েছে। উদার ও গণতান্ত্রিক একটা কালচার বাংলাদেশে ফেরত আনতে হবে।

এবি পার্টির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে শুভেচ্ছা জানিয়ে ভার্চুয়ালি আরও বক্তব্য দেন-রাষ্ট্রবিজ্ঞানী দিলারা চৌধুরী, নাগরিক ঐক্যের মাহমুদুর রহমান মান্না, কল্যাণ পার্টির সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীরপ্রতীক, বিএনপির সুকোমল বড়ুয়া ও নিলুফার চৌধুরী মনি, সাবেক এমপি গোলাম সরোয়ার মিলন প্রমুখ।

এবি পার্টির সদস্য সচিব মজিবুর রহমান মঞ্জুর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন-এবি পার্টির যুগ্ম-আহ্বায়ক অধ্যাপক ডা. মেজর (অব.) আব্দুল ওহাব মিনার, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট তাজুল ইসলাম, যুগ্ম-সদস্য সচিব ব্যারিস্টার আসাদুজ্জামান ফুয়াদ, ব্যারিস্টার যুবায়ের আহমেদ ভূঁইয়া, বিএম নাজমুল হক, সহকারী সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট আব্দুল্লাহ আল মামুন রানা, ব্যারিস্টার সানি আব্দুল হক, আনোয়ার সাদাত টুটুল, এবিএম খালিদ হাসান, আমিনুল ইসলাম এফসিএ, মহানগর উত্তর সমন্বয়ক নাজমুল হুদা অপু, মহানগর দক্ষিণ আহ্বায়ক এএফ ওবায়দুল্লাহ মামুন, শাহ আব্দুর রহমান, এম আমজাদ খান, অ্যাডভোকেট সাঈদ নোমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা ইদ্রিস আলী, ইঞ্জিনিয়ার আলমগীর হোসেন, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আব্দুল্লাহ আল হাসান সাকীব, মিনহাজুল আবেদীন শরীফ, আফ্রিদ হাসান তমাল, আব্দুল হালিম নান্নু, আব্দুল জলিল, রেখা আক্তার, কামাল হোসেন, বদরুল হুদা প্রমুখ।

এবি পার্টিতে যোগ দিলেন ব্যারিস্টার রাজ্জাক : জামায়াতে ইসলামীর সাবেক সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল ব্যারিস্টার আবদুর রাজ্জাক দীর্ঘদিন পর নীরবতা ভেঙে এবি পার্টিতে প্রধান উপদেষ্টা হিসেবে যোগ দিয়েছেন। এবি পার্টির প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে তার যোগদানের বিষয়টি প্রকাশিত হয়। অনুষ্ঠানে তিনি ভার্চুয়ালি শুভেচ্ছা বক্তব্যও রাখেন।

ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাক তার শুভেচ্ছা বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশের মানুষের জন্য সাম্য, মানবিক মর্যাদা ও সামাজিক সুবিচারের যে প্রতিশ্রুতি স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রে দেওয়া হয়েছে, জনগণের জন্য তা নিশ্চিত করার অঙ্গীকারের মাধ্যমে এবি পার্টির যাত্রা শুরু। বাংলাদেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের ধর্ম ইসলামে এই তিনটি অধিকারের সম্পূর্ণ নিশ্চয়তা প্রদান করা হয়েছে।

১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে জামায়াতের ভূমিকার জন্য ক্ষমা চাওয়া এবং দল বিলুপ্তির পরামর্শ দিয়ে ২০১৯ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি পদত্যাগ করেন ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাক। এরপর দীর্ঘদিন ধরে নিজেকে আড়াল রেখে এবার এবি পার্টিতে যোগ দিলেন।

এবি পার্টির সদস্য সচিব মজিবুর রহমান মঞ্জু বলেন, ব্যারিস্টার রাজ্জাককে পার্টির প্রধান উপদেষ্টা করা হয়েছে। আজ (রোববার) থেকে তিনি পার্টির উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

ফেসবুক পেজ লাইক করুন: https://www.facebook.com/Polnewsbd/

আমাদের টুইটার প্রোফাইল ফলো করুন: https://twitter.com/BdPolitical

খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনায় এলডিপির দোয়া মাহফিল

৩০ এপ্রিল ২০২১।। ১৮.০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি ও সুস্থতা কামনা করে বিশেষ দোয়া ও মিলাদ মাহফিল হয়েছে।
শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) ২০ দলীয় জোট শরিক লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এলডিপির উদ্যোগে এই দোয়া মাহফিল হয়।
দলের অস্থায়ী কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত দোয়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এলডিপি মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এম এ বাশার, যুগ্ম মহাসচিব আরিফুল কামাল, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম বেলাল হোসেন, দপ্তর সম্পাদক ফাহিম আহাম্মদ ফারুক, কেন্দ্রীয় নেতা দেলোয়ার হোসেন ফরিদ প্রমুখ।
দোয়া মাহফিলে খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনা ও দেশবাসীর কল্যাণ এবং করোনা মহামারী থেকে মুক্তির জন্য বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করেন মুফতী সালাউদ্দিন আয়ুবী।
এসময় এলডিপি মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম গুরুতর অসুস্থ সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও দেশের জনপ্রিয় রাজনৈতিক দল বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবী জানান।
তিনি বলেন, দেশনেত্রীকে নিঃশর্ত মুক্তি প্রদানের এখন যথেষ্ট যুক্তিসঙ্গত কারণ আছে। যেহেতু তিনি করোনা আক্রান্ত।
সেহেতু তার উপর থেকে সকল শর্ত প্রত্যাহার করা উচিত সরকারের যাতে করে তিনি তার ইচ্ছেমত চিকিৎসা গ্রহন করতে পারেন।
তিনি বলেন, সরকার রাজনৈতিকভাবে বিরোধী দলগুলোকে মোকাবিলা করতে ব্যর্থ হয়ে সরকার বিরোধী নেতাকর্মীদের দমন-পিড়ন অব্যাহত রেখেছে করোনাকালেও।
আসলে সরকার দেশ পরিচালনায় পরিপূর্ণ ব্যর্থ হয়ে দমন-পিড়নের মাধ্যমে তাদের অবৈধ শাসনকাল দীর্ঘায়িত করার অপচেষ্টায় লিপ্ত।

ফেসবুক পেজ লাইক করুন: https://www.facebook.com/Polnewsbd/

আমাদের টুইটার প্রোফাইল ফলো করুন: https://twitter.com/BdPolitical

আরমানিটোলায় হতাহতদের ক্ষতিপূরণ দাবি গণফোরামের

নিজস্ব প্রতিবেদক

পুরান ঢাকার আরমানিটোলায় কেমিক্যাল গোডাউনে অগ্নিকান্ডে হতাহতদের ক্ষতিপূরণ দেওয়া এবং আহতদের সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করার দাবি জানিয়েছে গণফোরামের একাংশ।

শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) এক যৌথ বিবৃতিতে দলটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু, সাবেক নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক আবু সাইয়িদ ও সুব্রত চৌধুরী এই দাবি জানান।

তারা বলেন, পুরান ঢাকাসহ সারাদেশে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা কেমিক্যাল গোডাউনগুলো সংরক্ষণে সরকারের কোনো সুনির্দিষ্ট নীতিমালা না থাকার কারণে প্রতি বছরই অগ্নিকান্ডে মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে। এজন্য সরকারের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারাই দায়ী।

গণফোরাম নেতারা অবিলম্বে কেমিক্যালসহ অন্যান্য দাহ্য বস্তুর সংরক্ষণ নীতিমালা ঘোষণা এবং অগ্নিকান্ডের সুনির্দিষ্ট কারণ খুঁজে বের করার দাবি জানান।

ফেসবুক পেজ লাইক করুন: https://www.facebook.com/Polnewsbd/

আমাদের টুইটার প্রোফাইল ফলো করুন: https://twitter.com/BdPolitical

প্রধানমন্ত্রীর মশকরার দিন ফুরিয়ে আসছে: ডা. জাফরুল্লাহ

২২ এপ্রিল ২০২১।। ১৫.৩০

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশের আড়াই কোটি দরিদ্র পরিবারের মধ্যে সরকারি হতবিল থেকে ১ বিলিয়ন ডলারের খাদ্য সরবাহ করতে সরকারকে আহ্বান জানিয়েছেন গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) দুপুরে জাতীয় শহীদ মিনারে অনুষ্ঠিতি “লকডাউনে মানুষের হাহাকার বন্ধে-
ঘরে ঘরে খাদ্য পৌঁছাও নাগরিক প্রতিকী অবস্থান” কর্মসূচীতে তিনি এ আহবান জানান।

লকডাউনে মানুষের হাহাকার বন্ধে- ঘরে ঘরে খাদ্য পৌঁছানোর দাবিতে এ অবস্থান কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়।

আরো পড়ুন: এক কোটি ২৫ লাখ পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দেবে সরকার

সভাপতির বক্তব্য ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, অবস্থা প্রতিদিনই খারাপের দিকে যাচ্ছে। এই দুর্বিষহ অবস্থার মধ্যে একটা সুখবর আছে তা হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী সুস্থ আছেন।

উনার ইবাদতের ফল দিয়েছেন, উনি ভালো আছেন বলেই আজ কৌতুক করছেন, মশকরা করছেন।

সব ধরনের গবেষণা বলেছে যে বাংলাদেশ দরিদ্র পরিবার সোয়া ২ কোটি অতিক্রম করেছে। এই সোয়া দুই কোটি পরিবারের জন্য প্রধানমন্ত্রী সাড়ে ১০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছেন।

এর মানে হচ্ছে প্রতি পরিবারে সোয়া ৪ টাকা করে পাবে। সোয়া ৪ টাকা দিয়ে রমজান মাসে কী খেতে পারেন?

এই জাতীয় মশকরা করছেন আমাদের প্রধানমন্ত্রী। আজ উনাকে স্মরণ করিয়ে দেওয়া দরকার যে এই মশকরার দিন ফুরিয়ে আসছে।

তিনি বলেন, আপনি সাড়ে ১০ কোটি টাকা দান করে ভিক্ষা দিচ্ছেন কাকে? যার টাকা তাকেই। আপনার ঘোষণা অনুযায়ী আপনার (সরকার) তহবিলে আছে ৪৩ বিলিয়ন ডলার।

কোনো চিন্তাভাবনা না করে আড়াই কোটি দরিদ্র পরিবারের মধ্যে ১ বিলিয়ন ডলার খাদ্য সহায়তা দেন।

জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, আরেকটা কথা আমি বলতে চাই; আমাদের যত রাজনীতিবিদ আছেন, সে বিএনপি হোক, কমিউনিস্ট পার্টি হোক, বাসদ হোক; সবাই মিলে চেষ্টা করলে বাংলাদেশ এক লক্ষ ধনী পরিবার, ব্যবসায়ীর কাছ থেকে সাত দিন চেষ্টা করলে ১০ কোটি টাকা উঠাতে পারি না? যারা মুক্তিযুদ্ধের সুবিধা নিয়ে, বাংলাদেশের সুবিধা নিয়ে কোটি কোটি টাকা মালকি হয়েছেন তাদের মনে করিয়ে দিতে চাই প্রধানমন্ত্রীর মশকরা বিপরীতে আপনারা যদি সাহায্যে না নামেন তাহলে জাতি আপনাদের ক্ষমা করবে না।

ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, সরকারের খামখেয়ালীপনার বিরুদ্ধে আমাদের রুখে দাঁড়াতে হবে। ডাকাতের সরকার কখনো জনগণের কথা ভাবে না।

আমাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় জনগণ জিতবে। গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হবে।

কর্মসূচিতে বিশিষ্ট নাগরিকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণফোরামের ড. রেজা কিবরিয়া, ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু, মুক্তিযোদ্ধা নঈম জাহাঙ্গীর, ইশতিয়াক আজিজ উলফত ও সাদেক খান, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক দিলারা চৌধুরী, আলোকচিত্রী শহিদুল আলম, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রেহনুমা আহমেদ, নাগরিক ঐক্যের সমন্বয়ক শহীদুল্লাহ কায়সার, ভাসানী অনুসারী পরিষদের সদস্য জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু ও ব্যারিস্টার সাদিয়া আরমান, নারীর জন্য সুশাসনের নির্বাহী পরিচালক রুবি আমাতুল্লাহ, রাষ্ট্রচিন্তার সদস্য দিদারুল ভুইয়া প্রমুখ।

রিক্সা চালক ও বাঁশখালীর শ্রমিকদের উপর হামলার তীব্র নিন্দা করে মাহমুদুর রাহমান মান্না বলেন, এই সরকারের কোনো মূল্যবোধ নেই”।

দরিদ্র পরিবারের জন্য মাত্র ১০ কোটি টাকা বরাদ্দ দেবার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে তিনি জনগণের কাছে দুঃখ প্রকাশের আহবান জানান।

পাশাপাশি ৪৫ লক্ষ পরিবারের কাছে খাদ্য সহায়তা পৌছানোর স্পষ্ট রূপরেখা জনগণের সামনে উন্মোচনের দাবি করেন।

দাবি না মানলে ঈদের পর সরকারের সাথে পাঞ্জা লড়ার অভিপ্রায় ব্যক্ত করেন তিনি।

করোনা মোকাবিলায় দরিদ্র পরিবারের খাদ্য নিশ্চয়তা প্রদানের লক্ষ্যে ৩৫ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়ার আহবান জানান অর্থনীতিবিদ ড. রেজা কিবরিয়া।

৩৫ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দকে বাস্তবসম্মত দাবি করে তিনি করোনা মোকাবিলায় প্রাপ্ত বিভিন্ন সংস্থার অনুদানকে সঠিকভাবে কাজে লাগানোর জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানান।

ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু বলেন, লকডাউন ঘোষণার সাথে সাথে যে হাহাকার সৃষ্টি হয়েছে তা মেনে নেওয়া যায় না।

আমরা সরকারের স্বেচ্ছাচারিতা মেনে নিবো না। জনগণের ইচ্ছার সাথে সঙ্গতি রেখেই সরকারকে সকল সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

জোনায়েদ সাকি লকডাউনকে গুরুত্বপূর্ণ দাবি করে তার বক্তব্যে বলেন, সম্মান করেই বলছি বাংলাদেশে লকডাউন দিতে হলে মানুষের খাদ্য নিশ্চিত করে দিতে হবে।

সেটা না করে লকডাউন দেওয়া প্রতারণা। কারণ করোনা সংক্রমণ কমানোর কোনো বাস্তবসম্মত পদক্ষেপ সরকারের নেই।

তথাকথিত লকডাউন জনগণের দুর্ভোগ সৃষ্টি করছে। গার্মেন্টস শ্রমিকদের কাজ করতে হচ্ছে কিন্তু তাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করা হচ্ছে না।

আলোকচিত্রী শহিদুল আলম এ দেশের এই পরিস্থিতিতে কবি, সাহিত্যিক, লেখক সহ শিল্পমনস্ক ব্যক্তিদের নীরবতা ভেঙে সরব হবার আহবান জানান।

দেশের অর্থনৈতিক খাতে বিপুল দুর্নীতির মধ্যে দরিদ্র পরিবারের জন্য মাত্র ১০ কোটি টাকার বরাদ্দকে তিনি হাস্যকর দাবি করেন। এছাড়াও সভায় অন্যান্য বক্তাগণ তাদের মতামত উপস্থাপন করেন।

ফেসবুক পেজ লাইক করুন: https://www.facebook.com/Polnewsbd/

আমাদের টুইটার প্রোফাইল ফলো করুন: https://twitter.com/BdPolitical

আলেম-ওলামাদের মুক্তি দাবি মান্নার

নিজস্ব প্রতিবেদক

গ্রেফতারকৃত হেফাজতে ইসলামের নেতাদের অবিলম্বে মুক্তি দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না।

মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) এক বিবৃতিতে এ দাবি জানান তিনি।

ডাকসুর সাবেক ভিপি মান্না বলেন, গত ২৬ মার্চ বায়তুল মোকাররমে শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ কর্মসূচিতে সরকারি দলের বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের কর্মীরা হেফাজতের কর্মী-সমর্থক এবং সাধারণ মুসল্লিদের উপর হামলা করে প্রথমে পরিস্থিতি উত্তপ্ত করে। বিভিন্ন ভিডিও ফুটেজে তা স্পষ্ট দেখা গেছে। সেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে সারাদেশে যে অরাজকতা তৈরি হয়েছে এবং মানুষকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে- তার সম্পূর্ণ দায় সরকারকে নিতে হবে।

তিনি বলেন, এসব ঘটনার পর দায়ের করা মামলা এবং সেই ২০১৩ সালের মামলাসহ বছরের পর বছর ধরে পড়ে থাকা মামলায় হেফাজতে ইসলামের নেতারা তথা দেশের আলেম সমাজের নেতাদের গণহারে গ্রেফতার করা হচ্ছে, রিমান্ডে নেওয়া হচ্ছে। একজন নেতার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে জাতীয় সংসদে যেভাবে রাষ্ট্রের শীর্ষ পর্যায় থেকে বিশোদগার করা হয়েছে, তাতে স্পষ্ট যে- সরকারি দল হেফাজতে ইসলামকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলায় ব্যর্থ হয়ে তাদের বিরুদ্ধে হিংসাত্মক রাজনীতির আশ্রয় নিয়েছে এবং রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে তাদের পর্যুদস্ত করার কাজে লিপ্ত হয়েছে।

মান্না অবিলম্বে গ্রেফতারকৃত আলেম-ওলামাদের মুক্তি দাবি করেন।

ফেসবুক পেজ লাইক করুন: https://www.facebook.com/Polnewsbd/

আমাদের টুইটার প্রোফাইল ফলো করুন: https://twitter.com/BdPolitical

হেফাজতের নেতা মামুনুল হককে সাত দিনের রিমান্ড

১৯ এপ্রিল ২০২১।। ১৪.৩০

নিজস্ব প্রতিবেদক

হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের বিরুদ্ধে রাজধানী মোহাম্মদপুর থানায় দায়ের করা মামলায় সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

সোমবার (১৯ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেবদাস চন্দ্র অধিকারী শুনানি শেষে রিমান্ডের এ আদেশ দেন। আদালতে সংশ্লিষ্ট থানার সাধারণ নিবন্ধন শাখা থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সূত্র জানায়, মোহাম্মদপুর থানার মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা উপ পরিদর্শক (এসআই) সাজেদুল হক হেফাজত নেতা মামুনুলকে আদালতে হাজির করেন।

সেইসাথে মামলার সুষ্ঠু তদন্তের প্রয়োজনে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন।

এসময় আসামি মামুনুলের পক্ষে আইনজীবী সৈয়দ জয়নাল আবেদীন মেজবাহ রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিনের আবেদন করেন।

অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষ বিরোধিতা করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক রিমান্ডের এ আদেশ।

এর আগে মাওলানা মামুনুল হককে বেলা ১১টা ৮ মিনিটে আদালতে হাজির করা হয়। এরপর তাকে আদালতের হাজতখানায় রাখা হয়।

মোহাম্মদপুর থানার এ মামলায় মারধর, হত্যার উদ্দেশ্যে আঘাতে গুরুতর জখম, চুরি, হুমকি ও ধর্মীয় কাজে ইচ্ছাকৃতভাবে গোলযোগের অভিযোগ এনে স্থানীয় এক ব্যক্তি মামুনুলের বিরুদ্ধে এ মামলাটি দায়ের করেন।

আরো পড়ুন: ঢাকায় হেফাজতের দায়িত্বে জুনায়েদ-মামনুল

এর আগে রোববার (১৮ এপ্রিল) রাজধানীর মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া মাদরাসা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের উপ কমিশনার (ডিসি) হারুন-অর-রশিদ গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে গ্রেফতারের পর তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনারের কার্যালয়ে নেওয়া হয়েছে।

আপাতত মোহাম্মদপুর থানার মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। অন্য মামলার বিষয়ে পরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

গত এক মাস ধরে ব্যক্তিগত জীবন আর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সফরের বিরোধিতা করে হেফাজতের আন্দোলনসহ নানা কারণে আলোচনার কেন্দ্রে রয়েছেন মাওলানা মামুনুল হক।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) সূত্রে জানা যায়, ২৬ মার্চ জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে সহিংসতার ঘটনায় গত ৫ এপ্রিল হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকসহ ১৭ জনকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে।

মামলায় ২ হাজার ব্যক্তিকে অজ্ঞাতনামা আসামিও করা হয়। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের উপ-দফতর সম্পাদক খন্দকার আরিফুজ্জামান বাদী হয়ে পল্টন থানায় মামলাটি করেন।

ফেসবুক পেজ লাইক করুন: https://www.facebook.com/Polnewsbd/

আমাদের টুইটার প্রোফাইল ফলো করুন: https://twitter.com/BdPolitical

হেফাজতের নেতা মাওলানা মামুনুল হক গ্রেফতার

১৮ এপ্রিল ২০২১।। ১৩.২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক

হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

রোববার (১৮ এপ্রিল) রাজধানীর মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া মাদরাসা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

তেজগাঁও বিভাগের উপ কমিশনার (ডিসি) হারুন-অর-রশিদ গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আরো পড়ুন: হেফাজতের ঢাকা মহানগরীর সভাপতি জুনায়েদ হাবিব গ্রেফতার

তিনি বলেন, হেফাজত ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে গ্রেফতারের পর তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনারের কার্যালয়ে নেওয়া হয়েছে।

আপাতত মোহাম্মদপুর থানার মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। অন্য মামলার বিষয়ে পরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

ফেসবুক পেজ লাইক করুন: https://www.facebook.com/Polnewsbd/

আমাদের টুইটার প্রোফাইল ফলো করুন: https://twitter.com/BdPolitical

বাঁশখালী হত্যাকাণ্ডের বিচার বিভাগীয় তদন্ত চায় যুব অধিকার পরিষদ

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনায় ৫ শ্রমিক নিহত হয়েছেন। এই ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ যুব অধিকার পরিষদ।

সংগঠনটির নেতৃবৃন্দ বলেন, অবৈধভাবে রাতের ভোটে ক্ষমতায় এসেছে আওয়ামী লীগ। তাদের লুটপাটের অন্যতম প্রকল্প চট্টগ্রামের বাঁশখালী কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্র।
১৭ এপ্রিল মুজিবনগর দিবস, এই দিনই বাঙালির মুক্তির সরকার গঠিত হয়েছিল। অথচ এই দিন সকালে বেতনের দাবিতে আন্দোলনরত নিরীহ শ্রমিকদের গুলি করে হত্যা করেছে আওয়ামী লীগ সরকারের তাবেদার পুলিশ বাহিনী।
এই হত্যাকাণ্ডে যারা জড়িত, তাদের চিহ্নত করে আইনের আওতায় আনতে বিচার বিভাগীয় তদন্ত এবংএই বিদ্যুৎকেন্দ্র সংশ্লিষ্ট ‘মনস্টার’ খ্যাত দখলদার শিল্প গ্রুপ এস আলম গ্রুপের অবৈধ ক্ষমতার উৎস জনগণের সামনে তুলে ধরার দাবি জানান বাংলাদেশ যুব অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক মুহাম্মদ আতাউল্লাহ ও সদস্য সচিব ফরিদুল হক।
নেতৃদ্বয় এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন, বিশ্ব যেখানে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ থেকে সরে আসছে সেখানে সবার আপত্তির মুখে সরকার বাঁশখালীতে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেয়।
স্থানীয় জনগণের জমি অবৈধভাবে দখল করে এটি নির্মাণ করা হচ্ছে। শুরু থেকেই সাধারণ মানুষ এর প্রতিবাদ করে আসছিল।
প্রতিরোধে সরকার ২০১৬ সালের ৪ এপ্রিল পুলিশ দিয়ে গুলি করে ৪ জন সাধারণ মানুষকে হত্যা করে। অন্য প্রতিবাদি জনতাকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশি মামলা কাদে নিয়ে এখনো পালিয়ে বেড়াচ্ছেন সাধারণ মানুষ।
শেষ পর্যন্ত আওয়মী সন্ত্রাসীদের হামলা ও পুলিশের মামলার ভয়ে নিজেদের ভিটেমাটি বাধ্য লুটেরাদের হাতে তুলে দেয় জনগণ। নির্মাণাধীন এই প্রকল্পে শ্রম আইনর কোনো তোয়াক্কা করা হয় না।
আজ (১৭ এপ্রিল) সকালে বেতন-ভাতার দাবিতে শ্রমিকরা মালিকপক্ষের সঙ্গে কথা বলতে যায়। কিন্তু পুলিশ তাতে বাধা দেয়। এক পর্যায়ে পুলিশ লাঠিপেটা শুরু করে।

শ্রমিকরা এর প্রতিবাদ করলে বিনা উষ্কানিতে নির্বিচারে গুলি চালায় পুলিশ। এতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ৫ জন নিহত হয়েছেন। গুলিবিদ্ধ হয়েছেন অসংখ্য।

এইসব হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে নাৎসী বাহিনী কিংবা মিয়ানমারের সামরিক জান্তার মিল খুঁজে পাচ্ছে যুব অধিকার পরিষদ।
যুব অধিকার মনে করে, দেশে গণতন্ত্র ও ভোটের অধিকার না থাকায় শাসক গোষ্ঠি আজ চরম হিংস্র হয়ে উঠেছে। তাদের স্বার্থের বাইরে কেউ কোনো কথা বললে যেকোনো উপায় তা দমন করছে। এজন্য নিয়মিত জীবন দিতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে।
শাসক গোষ্ঠির এই অবৈধ কার্যক্রমে প্রসাশনের কিছু অসাধুকে ব্যবহার করা হচ্ছে। এতে জনগণের কাছে প্রশাসনের গ্রহণযোগ্যতা শেষ হয়ে গেছে। দেশ আজ কাশ্মির, আরাকান, ফিলিস্তিন কিংবা সিরিয়ার অবস্থায় পৌঁছেছে।
জনগণকে সঙ্গে নিয়ে বাংলাদেশ যুব অধিকার পরিষদ এই অত্যাচারিদের দেশ ছাড়া করতে চায়। তারা দেশের মানুষের কাছে তাদের অধিকার ফিরিয়ে দিতে চায়।
এজন্য জনগণকে সব ভয়কে উপেক্ষা করে ১৯৭১ সালের মতো পুণরায় রাজপথে নামার অনুরোধ জানানো হচ্ছে। আপনারা আসুন, রাজপথে নামুন। একাত্তরে হানাদারদের হটিয়েছি, এবার আওয়ামী সন্ত্রাসী হটাবো।

ফেসবুক পেজ লাইক করুন: https://www.facebook.com/Polnewsbd/

আমাদের টুইটার প্রোফাইল ফলো করুন: https://twitter.com/BdPolitical

করোনা আক্রান্ত ফজলে হোসেন বাদশাকে ঢাকায় স্থানান্তর

নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনায় আক্রান্ত রাজশাহী-২ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশাকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়েছে।

এর আগে করোনা শনাক্ত হওয়ার পর থেকে তিনি রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

ঢাকার স্থানান্তরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রামেক হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস।

তিনি জানান, আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ১৪ সদস্যের মেডিকেল বোর্ডের বৈঠকের পর তাকে ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) রেফার করা হয়েছে।

১৪ সদস্যের ওই মেডিকেল বোর্ড ও রামেক হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের প্রধান ডা. খলিলুর রহমান বলেন, ‘ফজলে হোসেন বাদশার শারীরিক অবস্থা ভালো আছে। যেহেতু তার উন্নত চিকিৎসার সুযোগ রয়েছে, তাই তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।’

‘প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ব্যবস্থাপনায় বিমান বাহিনীর এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে ঢাকায় নেওয়া হয়েছে। ঢাকার বিএসএমএমইউতে তার চিকিৎসা চলবে’, যোগ করেন এই চিকিৎসক।

ফেসবুক পেজ লাইক করুন: https://www.facebook.com/Polnewsbd/

আমাদের টুইটার প্রোফাইল ফলো করুন: https://twitter.com/BdPolitical